চৌমুহনীর মার্কেটে ভয়াবহ আগুন

সমগ্র বাংলা

নোয়াখালীর প্রধান বানিজ্যিক কেন্দ্র চৌমুহনী বাজারে রবিবার সন্ধ্যায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। প্রায় দু’ঘন্টার চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলেও পুড়ে গেছে রেল ষ্টেশনের পূর্ব পাশে অবস্থিত ইসলামীয়া মার্কেটের অন্তত ৪০টি দোকান। আগুনের কারন ও ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে ইসলামিয়া মার্কেটে আগুনের সূত্রপাত। আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। প্রথম পর্যায়ে স্থানীয় লোকজন ও ব্যবসায়ীরা চেষ্টা করে আগুনের বিস্তার থামাতে ব্যর্থ হন। মার্কেটের প্রায় সকল দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে নোয়াখালী, ফেনী ও লক্ষীপুর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দশটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে। সরুরাস্তা হওয়ার কারনে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঢুকতে বেগ পায়। এছাড়াও আশেপাশে জলাধার না থাকায় পানি সংগ্রহে বিলম্ব হয়। তারপরও ফায়ার কর্মীদের প্রানান্তকর চেষ্টায় দুই ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে।

ব্যবসায়ীরা জানান, মার্কেটে সিরামিক, কোকারিজ, বৈদ্যুতিক সামগ্রী, বই, ষ্টেশনারী ও সেনিটারীর দোকান ছিল। এর আগে মার্কেটে দুবার আগুন লেগেছিল। এবারের আগুনে নূন্যতম ৫০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বৈদ্যুতিক সট সার্কিট অথবা গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ব্যবসায়ীরা ধারনা দেন।

নোয়াখালী ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক তৌফিকুল এলাহী ভূইয়া জানান, আগুনের খবর পেয়ে মাইজদী, চৌমুহনী, সোনাইমুড়ী, লক্ষীপুর ও ফেনীর ১০টি ইউনিট পৌছে। রাত সাড়ে ৮টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ও অগ্নিকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে এ মূহূর্তে কিছু বলা যাচ্ছে না।

আগুনের খবর পেয়ে নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক তন্ময় দাসসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *